গুগলে চাকরি করবো কিভাবে? বিস্তারিত নিয়ম দেখুন

how to apply job on google

আমাদের আজকের এই পোস্টে বিশ্বের সবচেয়ে বড় টেক জায়ান্ট কোম্পানী গুগল সম্পর্কিত বিস্তারিত কিছু তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। আপনি যেভাবে এই কোম্পানীতে পেয়ে যেতে পারেন চাকুরীর সুযোগ। বাংলাদেশে থেকে এখনো মানুষের তেমন ধারণা নেই যে গুগলে চাকরি করতে হলে আপনাকে কোথা থেকে শুরু করতে হবে। আমাদের পোস্টে একদম বুলেট পয়েন্ট আকারে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য দেয়া হয়েছে যেগুলো আপনাকে সাহায্য করবে গুগলে চাকরী পেতে হলে করণীয় সকল বিষয়ে।

গুগলে চাকরী পেতে আবেদনের নিয়ম

গুগলে চাকরী পেতে হলে বেশ কয়েকটি পন্থা রয়েছে। আবেদনের সরাসরি নিয়ম হচ্ছে সিভি ড্রপ করা। এর বাইরেও কয়েকটি সিস্টেম রয়েছে, যদি আপনার ভাগ্য ভালো হয়ে থাকে এবং যথেষ্ট স্কিল ডেভেলপ করতে পারেন তাহলে গুগল সরাসরি আপনার যাথে যোগাযোগ করবে। সেক্ষেত্রে লিংকডিন প্রফাইল সুন্দরভাবে সাজানো থাকতে হবে। এছাড়া অনলাইন প্রফাইলসমূহ আপনার স্কিল রিপ্রেজেন্ট করে এমনভাবে সাজাতে হবে।

এছড়া পরিচিত কেউ গুগলে থাকলে তারা রেফার করতে পারে। গুগলে যারা চাকুরী করে তারা রেফার করে নিজের কলিগ হিসেবে নিতে পারে। তাই অনলাইনে আবেদন করে রেফারের মাধ্যমে আপনি সরাসরি ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে চাকুরি পেতে পারেন।

এছাড়া বিশ্বের প্রায় সকল দেশেই গুগলের রিক্রিউটর গিয়ে বড় বড় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ট্যালেন্ডেড ছাত্র ছাত্রীদের পরীক্ষার মাধ্যমে তুলে নিয়ে আসেন। চাকুরীর মেলায় এসব ছাত্রছাত্রীদের বিভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে যাচাই করা হয়ে থাকে।

আর সবথেকে সহজ এবং বেশি কম্পিটিটর হচ্ছা সরাসরি অনলাইনে সিভি ড্রপ করা। আপনি চাইলে নিজের সিভি সরাসরি অনলাইনে ড্রপ করতে পারেন। সেক্ষেত্রে ইন্টারভিউ সিরিয়াল পাওয়া ভাগ্যের উপর নির্ভর করবে। মিলিয়ন মিলিয়ন সিভি থেকে আপনার ডাক কখন পড়বে কিংবা আদও পড়বে কিনা তার কোন গ্যারান্টি নেই।

গুগলে চাকরীর আবেদন করতে প্রথমেই নিচের লিংকে প্রবেশ করুন,
Careers.google.com

  • লিঙ্কে প্রবেশ করে আপনার ক্যাটাগড়ি ভিত্তিক চাকরী সার্চ করুন।
  • পছন্দের চাকরী পেয়ে গেলে সেখানে বিস্তারিত দেখুন।
  • যোগ্যতা মিলে গেলে এপ্লাই ক্লিক করুন।
  • এবার প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে খালি ঘর পূরণ করুন।
  • আপনার সিভি সর্বোচ্চ ২MB এর বেশি হওয়া যাবে না।
  • সকল তথ্য দিয়ে আবেদন সম্পন্ন করুন।
  • একবার আবেদন করলে একই পদে ৯০ দিন এর আগে আর আবেদন করতে পারবেন না।
  • আপনার সিভি যত আকর্ষনীয় হবে ততোই ডাক পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে।

গুগলে চাকরী পেতে কি কি যোগ্যতা লাগে

গুগলে চাকরী পেতে হলে আপনাকে প্রচলিত পদ্ধতিতে সিজিপিএ হাই থাকতে হবে এমনটি নয়। শিক্ষাগত যোগ্যাতার চেয়ে গুগল বেশি প্রাদান্য দিয়ে থাকে স্কীল এর। অর্থাৎ শিক্ষাগত যোগ্যতা যাই থাকুক না ক্যানো আপনার স্কীল যদি ভালো থাকে তাহলেই পেয়ে যেতে পারেন গুগলে চাকরী।

গুগলে চাকরী পাওয়ার জন্য যে মূল বিষয়গুলি থাকা বাধ্যতামূলক তা হচ্ছে, 

  • সাধারণ জ্ঞ্যান
  • দক্ষতা
  • নম্রতা

গুগলে চাকরী পেতে গণিত, কম্পিউটারিং বিশেষ করে প্রোগ্রামিং কোড জানা থাকে অতন্ত জরুরী। গুগলে টেকনিক্যাল বিষয়েই বেশি নিয়োগ দিয়ে থাকে। তবে জেনারেল এর জন্যেও এখানে যথেষ্ট চাকরী রয়েছে। গণিত এবং প্রোগ্রামিং কোড এর দক্ষতা আপনাকে গুগলে চাকরী পেতে বাড়িতি সুবিধা প্রদান করবে।

শিক্ষাগত যোগ্যতা,

  • বি-টেক অথবা এমসিএ সমমান
  • দশম, দ্বাদশ এবং উপরের সকল পরীক্ষায় কমপক্ষে ৬৫% মার্ক
  • সাবলীলভাবে ইংরেজিতে কথা বলার এবং লিখার দক্ষতা থাকতে হবে
  • গণিত, প্রোগ্রামিং, লজিক্যাল থিওরি, এবং দ্রুত সমস্যা সমাধানের দক্ষতা থাকতে হবে।
  • কম্পিউটার সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে।

how to apply job on google

যেসব বিষয়ে ধারণা থাকলে গুগলে চাকরী পাওয়া সহজ

১.প্রোগ্রামার

আপনি যদি প্রোগ্রামার হয়ে থাকেন এবং প্রোগ্রামিং এর উপর ভালো ধারণা থাকে তাহলে এই বিষয়ের উপর আপনি গুগলে এপ্লাই করতে পারেন। গুগল সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে প্রোগ্রামারদের জন্য। এই সেক্টরে ভালো স্কিল ডেভেলপ করতে পারলে আপনার গুগলে চান্স পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।

২. মার্কেটিং

প্রোগ্রামিং এর পরেই সবচেয়ে বেশি লোকবল নিয়োগ দেয়া হয়ে থাকে মার্কেটিং ভিভাগে। সারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এসব মার্কেটিং এর প্রয়োজন পড়ে। তাই গুগল এ জব করার জন্য মার্কেটিং জানা থাকলে সেটিও অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

৩. UI-UX এবং সাইট রিভিউয়ার

এই সেক্টরে গুগল প্রতিনিয়ত নিয়োগ দিয়ে থাকে। সাইট অথবা এপ্লিকেশন রিভিউ এর জন্য আপনি নিয়োগ পেতে পারেন সহজেই যদি এই সেক্টরে আপনার কাজ জানা থাকে। নতুন একটি সাইট যখন পরিচালনার ক্ষেত্রে গুগল সেটি ম্যানুয়ালি রিভিউ করে থাকে এই রিভিউয়ার দ্বারা।

গুগলে যেসব ক্যাটাগরিতে চাকরী পেতে পারেন। 

  • ক্রিয়েটিভ স্পেশালিষ্ট
  • ডাটাবেস এডমিন
  • সফটওয়্যার প্রকৌশলী
  • প্রোডাক্ট মার্কেটিং ম্যানেজার
  • এসিস্ট্যান্ট প্রোডাক্ট ম্যানেজার
  • প্রোডাক্ট ম্যানেজার
  • কোয়ান্টিটি কম্পেনসেশন এনালিষ্ট
  • কোয়ান্টিটিভ এনালিষ্ট
  • ইঞ্জিনিয়ারিং ম্যানেজার
  • বিজনেস এসোসিয়েস সহ আরো হাজারো পদ রয়েছে।

শেষ কথাঃ 
গুগলে চাকরী পেলে আপনি নিজের ইচ্ছামতো দেশে পোস্টিং নিতে পারবেন। ইন্টারভিউ দেবার জন্য কমপক্ষে ৪৫ মিনিটের প্রস্তুতি থাকতে হবে। অবশ্যই ইংরেজিতে যথেষ্ট জ্ঞ্যান থাকতে হবে। এছাড়া এমন হাজারো দক্ষতা রয়েছে যেগুলো আপনাকে গুগলে চাকরী পেতে সহায়তা করবে। এ বিষয়ে আরো কিছু জানার থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করুন।

আরো দেখুনঃ

About Aria Smith

Hi, I'm Aria Smith. I am an Engineer. I like to Write blogs very much & may it be on multiple niches. On this site, we exposed every single moment earnings of popular persons.

View all posts by Aria Smith →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *